1. [email protected] : News room :
শিবগঞ্জে পানিবন্দী ৫শ পরিবার -ডুবে গেছে আড়াই হাজার হেক্টর মাসকলাই - লালসবুজের কণ্ঠ
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৪০ পূর্বাহ্ন

শিবগঞ্জে পানিবন্দী ৫শ পরিবার -ডুবে গেছে আড়াই হাজার হেক্টর মাসকলাই

  • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট,লালসবুজের কণ্ঠ-চাঁপাইনবাবগঞ্জ:
অসময়ে হঠাৎ করে পদ্মা নদীর পানি বেড়ে যাওয়ায় ক্ষতির মুখে পড়েছে পদ্মা পাড়ের বাসিন্দারা। প্রবল ¯্রতের কারনে বেশ কিছু এলাকায় নদী ভাঙন শুরু হয়েছে। এছাড়া শিবগঞ্জ উপজেলার মনাকষা,দূর্লভপুর,পাঁকা ও উজিরপুর ইউনিয়নের প্রায় ৫শতাধীক পরিবার পানি বন্দী হয়ে পড়েছে। অপর দিকে উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নের প্রায় আড়াই হাজার হেক্টোর জমির মাসকলাই পানিতে তলিয়ে নষ্ট হতে লেগেছে। একই সঙ্গে ওই এলাকার প্রায় ২শ শিবগঞ্জে পানিবন্দী ৫শ পরিবার -ডুবে গেছে আড়াই হাজার হেক্টর মাসকলাই জমির শীতকালিন সব্জিও নষ্ট হয়ে গেছে।

হঠাৎ করে পদ্মা নদীর পানি বেড়ে যাওয়ায় ক্ষতির মুখে পড়েছে পদ্মা পাড়ের বাসিন্দারা

পাঁকা এলাকার আব্দুল খলিল নামে এক কৃষক জানান,প্রতি বছর তিনি ৫-৭ বিঘা জমিতে মাসকলাই বপণ করেন। এবারও তিনি ৭ বিঘা জমিতে মাসকলাই বপণ করেছিলেন। কিন্তু অসময়ের হঠাৎ বণ্যায় সবগুলো জমি ডুবে গেছে। এতে অধিকাংশ জমির মাসকলাই নষ্ট হয়ে যাবে।

একই এলাকার আবুল কালাম জানান,পদ্মায় পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে শুরু হয়েছে তীব্র নদী ভাঙন। জামাই পাড়া হতে তের রশিয়া পর্যন্ত নদী ভাঙন শুরু হয়েছে।

উজিরপুর বাঁধ এলাকার আইয়ুব আলী লালসবুজের কণ্ঠ কে বলেন,সামনে শীত মৌসুমের জন্য তিন বিঘা জমিতে বিভিন্ন ধরনের শীতকালিন সব্জি চাষ করেছিলেন। কিন্তু হঠাৎ করে বন্যার পানিতে ডুবে যাওয়ায় ব্যাপকভাবে ক্ষতির মুখে পড়বেন।

শিবগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,মনাকষা,দূর্লভপুর,উজিরপুর ও পাঁকা ইউনিয়নের প্রায় সাড়ে চারশ পরিবার পানিবন্দী রয়েছে। তাদের আগামী বৃস্পতিবার ত্রান দেয়া হবে।

শিবগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এসএম আমিনুজ্জামান জানান,হঠাৎ বন্যায় চরাঞ্চল এলাকার প্রায় আড়াই হাজার হেক্টোর জমির মাসকলাই পুরোপুরি নষ্ট হয়ে গেছে। এছাড়া কিছু শীতকালিন সব্জিও নষ্ট হয়েছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ পানি উন্নয়বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সৈয়দ সাহিদুল আলম লালসবুজের কণ্ঠ কে জানান,গত ২৪ ঘন্ঠায় ১২ সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। যা বিপদ সীমার ৯৬ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তবে যে হারে পানি বাড়ছে দ্রুতই বিপদ সীমা অতিক্রম করতে পারে।

475Shares

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর