নাচোলে সার সংকট মোকাবেলায় ছুটির দিনেও কঠোর মনিটিরিং - লালসবুজের কণ্ঠ
    মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:০২ পূর্বাহ্ন

    নাচোলে সার সংকট মোকাবেলায় ছুটির দিনেও কঠোর মনিটিরিং

    • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ২৬ আগস্ট, ২০২২

    লালসবুজের কণ্ঠ রিপোর্ট, নাচোল:


    চাঁপাইনবাবগঞ্জের বরেন্দ্র অঞ্চল নাচোলে রাসায়নিক সার সংকট মোকাবেলার জন্য (শুক্রবার) ছুটির দিনেও উপজেলা সার ও বীজ মনিটরিং কমিটির কর্মকর্তাগণ নির্দিষ্ট ডিলারেদের দোকান থেকে সরাসরি কৃষকদের নিকট সার বিশেষ করে পটাশ ও ডিএপি বিক্রয় কার্যক্রম পরিচালনা করছেন।

    সরেজমিনে দেখা গেছে, আজ শুক্রবার নাচোল বাজারের ৩টি সার ডিলারের দোকানে সকাল ৬টা থেকে সারের জন্য কৃষকরা লাইনে দাঁড়িয়ে সার নিচ্ছেন। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বুলবুল আহম্মেদের তত্বাবধানে ও উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে সরকারী নির্ধারিত মূল্যে ডিএপি ও এমওপি(পটাশ) সার বিতরণ করা হয়।

    কৃষকদের অভিযোগ চাহিদামত সার পাচ্ছেন না, পেলেও ডিলারগণ নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে বেশী মূল্য নিচ্ছে। এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বুলবুল আহম্মেদ জানান, জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে উপজেলা কৃষি বিভাগের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে নির্ধারিত মূল্যে সার বিক্রয় কার্যক্রম পরিচালনা করো হচ্ছে।

    চলতি মাসে ইউরিয়ার বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল ৮৬০ মেঃ টন, উত্তোলন ৬৮০ মেঃ টন, ডিএপি বরাদ্দ ছিল-২৪১ মেঃ টন, সম্পূর্ণই উত্তোলন করা হয়েছে, এমওপি (পটাশ) বরাদ্দ ছিল ১৫০ মেঃ টন, উত্তোলন হয়েছে প্রায় ১২০ মেঃ টন, টিএসপি বরাদ্দ ছিল ৬৫ মেঃ টন, সম্পূর্ণই উত্তোলন করা হয়েছে।

    চলতি আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ২২ হাজার ৫২০ হেক্টোর ধরে সারের জন্য চাহিদাপত্রের বিপরিতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। তবে চাহিদার তুলনায় এমওপি(পটাশ) পাওয়া যাচ্ছেনা। কৃষকরা না বুঝেই ধান ক্ষেতে বেশী মাত্রায় পটাশ প্রয়োগ করছেন। পরিমিত সার ব্যবহার না করলে পোকার আক্রমন হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। কিন্তু কৃষকরা শুনছেন না। তবে অল্প কিছু দিনের মধ্যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে। অধিক মূল্য আদায়ের অভিযোগে ও সার মজুদের আশংকায় সরাসরি কৃষকদের কথা বিবেচনা করে গ্রাম পর্যায়ের খুচরা সার ডিলারদেরকে অল্প সার সরবারাহ দেওয়া হয়েছে।

    ২৫ আগস্ট বৃহস্পতিবার পর্যন্ত উপজেলার ৬জন সার ডিলারকে বিভিন্ন অনিয়মের অপরাধে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সার মনিটরিং কমিটির সভাপতি মোহাইমেনা শারমীন ভ্রম্যমান অভিযান পরিচালনা করে অর্থদন্ড করেছেন।


    জিলানী/এআর

    60Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর