ডাবে এক চুমুকেই ১২০ টাকা! - লালসবুজের কণ্ঠ
    শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০২:০৪ অপরাহ্ন

    ডাবে এক চুমুকেই ১২০ টাকা!

    • আপডেটের সময় : সোমবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২২

    লালসবুজের কণ্ঠ রিপোর্ট, নিউজ ডেস্ক


    তৃষ্ণা মেটাতে ডাবে চুমুক দিতে চান না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দায়। আর সেটা যদি বৈশাখের তীব্র গরমে ইফতারের সঙ্গে পাওয়া যায়, তাহলে তো কথাই নেই। তবে ডাবে চুমুক দিতি গিয়ে যদি এক ডাবেই ১২০ টাকা খরচ হয়ে যায়, তবে সেটা কারও ভালো লাগার কথা নয়।

    রাজধানীর গ্রিন রোডে ভ্রাম্যমাণ ভ্যানে ডাব বিক্রি করেন নুরুল হক নামে এক বিক্রেতা। পুরো ভ্যান বোঝাই ডাব দেখে অনেক পথচারী দাম জিজ্ঞেস করেই হাঁটতে থাকেন। কারণ তিনি প্রতি ডাবের দাম হাঁকছেন ১২০ টাকা। যা শোনার পর অনেকেরই চোখ কপালে ওঠার মতো অবস্থা। নুরুলের ভ্যানে ৮০ টাকায় ডাব মিললেও সেগুলো সাইজে এতটাই ছোট যে এক ডাবে এক গ্লাসের বেশি পানি হবে কি না সন্দেহ রয়েছে।

    কলাবাগান এলাকার বাসিন্দা আব্দুল মতিন অনেক চেষ্টা করেও নুরুলের কাছ থেকে দুটি ডাব ২০০ টাকায় কিনতে পারেননি। সেখানে ঢাকা পোস্টের সঙ্গে কথা হয় মতিনের। তিনি বলেন, দেখেন না, এক ডাব ২০০ টাকা চায়। কি একটা অবস্থা তরমুজ কেনা যায় না, ডাব কেনা যায় না; একটা বেল কিনতে গেলেও ৬০ থেকে ৭০ টাকা দিতে হয়। মানুষ খাবে কী?

    ডাবের দাম এত বেশি হাঁকার কারণ জানতে চাইলে নুরুল জানান, রমজানে চাহিদা বেশি থাকায় বেশি দামে ডাব কিনতে হচ্ছে। মানুষ যা খাচ্ছে সবইতো বিষ। এই ডাবটাই পাবে একমাত্র ফরমালিন ছাড়া। ভালো জিনিস খাইতে গেলে একটু বেশি দামতো দিতেই হবে।

    রাজধানীর গ্রিন রোড ছাড়াও ক্রিসেন্ট রোড, কলাবাগান, পান্থপথ ও কাঁঠালবাগান বাজারে ফলের দোকান ঘুরে দেখা যায়, বড় সাইজের একটি ডাব বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকায়, মাঝারি সাইজ ১০০ টাকা এবং প্রতিটি ছোট ডাব বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকায়। ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রতিটি সাইজের ডাবের দাম রোজায় ২০ থেকে ৩০ টাকা বেড়েছে।

    এবার রমজানের শুরুটা চৈত্র মাসে হলেও বেশিরভাগ সময়জুড়ে থাকছে বৈশাখ। এ সময়ে গরম একটু বেশিই থাকে, যার কারণে পানিসমৃদ্ধ ফলের চাহিদা একটু বেশি থাকে। তার মধ্যে ডাব এবং তরমুজের চাহিদা বেশি।

    ক্রিসেন্ট রোডে এক ভ্রাম্যমাণ ডাব বিক্রেতার সঙ্গে দাম নিয়ে কথা কাটাকাটি হয় এক ক্রেতার। ওই ক্রেতা জানান, একেবারে ছোট সাইজের একটা ডাব ৮০ টাকার নিচে দেবে না। এটা মগের মুল্লুক নাকি। এই ডাবটাই ৩০ থেকে ৪০ টাকায় রোজার আগে ছিল। এখন ডাবল হয়ে গেল।


    লালসবুজের কণ্ঠ/শান্ত

    50Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর