জ্বালানি তেলের দাম সমন্বয়ের চেষ্টা চলছে : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী - লালসবুজের কণ্ঠ
    শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:০৮ পূর্বাহ্ন

    জ্বালানি তেলের দাম সমন্বয়ের চেষ্টা চলছে : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

    • আপডেটের সময় : শনিবার, ২৭ আগস্ট, ২০২২

    লালসবুজের কন্ঠ,নিউজ ডেস্ক


    গত মাসের তুলনায় চলতি আগস্ট মাসে দেশে বিদ্যুতের অবস্থা ভালো এবং আরও ভালো অবস্থায় যাবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। তিনি বলেছেন, বৈশ্বিক পরিস্থিতির আলোকে জ্বালানি তেলের দাম সমন্বয়ের চেষ্টা করছে সরকার।

    শনিবার বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শ ও শোকাবহ ১৫ আগস্ট’ র্শীষক আলোচনা সভায় অনলাইনে যুক্ত থেকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

    প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, জ্বালানি সংকট মোকাবিলায় প্রায় দেড় মাস ধরে লোডশেডিং চলছে। তবে গত এক মাস আগের চেয়ে বর্তমানে বিদ্যুতের অবস্থা আরেকটু ভালো। আগামী এক মাসের মধ্যে আরও স্বাভাবিক হবে।

    প্রতিমন্ত্রী বলেন, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বিশ্বের প্রতিটি দেশেই অর্থনৈতিক প্রভাব পড়েছে। বাংলাদেশ তো এর বাইরে না। আমরা অর্থনীতির ভীত রচনা করেছি। আমাদের আরেকটু সাহসিকতার সঙ্গে এগিয়ে যেতে হবে।

    নসরুল হামিদ বলেন, বিএনপি সরকার বিদ্যুৎ সেক্টরকে ধ্বংস করে দিয়েছে। তারা নিজেরা পকেট ভারী করতে করতে শুধুমাত্র খাম্বা বাণিজ্য করেছে।

    প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘জ্বালানির দাম বিশ্ববাজারে কমলে সরকারও সমন্বয়ের দিকে যাবে। আমরা শতভাগ বিদ্যুতায়ন করেছি। বিদ্যুৎ জ্বালানি বিভাগ এ পরিস্থিতি থেকে বের হওয়ার চেষ্টায় আছে।’

    নসরুল হামিদ বলেন, একটি রাষ্ট্রের জন্য প্রয়োজনীয় এমন কোনো বিষয় নেই যে তিনি স্পর্শহীন রেখেছেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জ্বালানি ও বিদ্যুৎকে অর্থনৈতিক মুক্তির অন্যতম খাত হিসেবে বিবেচনা করেছিলেন। গ্রামের প্রতিটি মানুষ যাতে বিদ্যুৎ পায়, সেজন্য তিনি বিদ্যুৎকে সংবিধানের অংশ করেছিলেন, যা বিশ্বের ইতিহাসে নজিরবিহীন ঘটনা।

    প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু যে কী পরিমাণ দূরদর্শী মানুষ ছিলেন, তা বোঝা যায় তার আরেকটি যুগান্তকারী সিদ্ধান্তে। মৃত্যুর মাত্র পাঁচ দিন আগে তিনি শেল ওয়েল কোম্পানির কাছ থেকে পাঁচটি গ্যাসক্ষেত্র কিনে নেন, যেখান থেকে আমরা এখনো পর্যন্ত দেশের প্রায় ৪০ ভাগ গ্যাস পাচ্ছি।

    বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০০৯ সালের পূর্বে সারাদেশে দিনে ১৬-১৮ ঘণ্টা বিদ্যুৎ থাকত না। সেই কঠিন অবস্থা থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিয়ে শতভাগ বিদ্যুতায়নের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করেছেন। রাশিয়া-ইউক্রেন দ্বন্দ্বের জন্য সারা বিশ্বের অর্থনৈতিক অবস্থা নাজুক, জ্বালানির বাজারকে করেছে চরমভাবে অস্থিতিশীল।

    এ সময় তিনি সবাইকে ধৈর্য ধরার অনুরোধ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আস্থা রাখুন নির্ধারিত সময়ের আগেই বাংলাদেশ সুখী-সমৃদ্ধ, সোনার বাংলায় পরিণত হবে।

    অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন সাবেক মুখ্য সচিব ড. কামাল আব্দুল নাসের চৌধুরী। বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে যুক্ত থেকে বক্তব্য দেন বিদ্যুৎ সচিব মো. হাবিবুর রহমানসহ প্রমুখ।

    0Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর