গরমে ঘর ঠান্ডা রাখবে যেসব ইনডোর প্ল্যান্ট - লালসবুজের কণ্ঠ
    সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৮:৪৫ পূর্বাহ্ন

    গরমে ঘর ঠান্ডা রাখবে যেসব ইনডোর প্ল্যান্ট

    • আপডেটের সময় : বুধবার, ১ জুন, ২০২২

    নিউজ ডেস্ক,লালসবুজের কণ্ঠ;


    প্রচণ্ড গরমে ঘর ঠান্ডা করার জন্য সবাই এসির কথা চিন্তা করেন। কিন্তু অনেকেই হয়তো জানেন না উষ্ণ আবহাওয়ায় ঘরের ভেতর কিছু গাছ লাগালেও ঘরের উষ্ণতা কমতে পারে।

    এসব গাছপালা যে শুধু প্রাকৃতিক প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে ঘরকে ঠান্ডা রাখে তা নয়, এই ধরনের গাছপালা ঘরের বাতাসে আর্দ্রতা যোগ করতেও সহায়তা করে।

    ঘরের সৌন্দর্য বাড়ানোর জন্য অনেক প্রকৃতিপ্রেমী ঘরে বেশ সুন্দর করে বাহারি গাছ সাজিয়ে রাখেন। তবে কেবল সৌন্দর্য বর্ধনে নয়, এমন অনেক গাছ রয়েছে যা ঘরের ভেতরের আবহাওয়াকে শীতল রাখতে সাহায্য করে।

    তবে গাছগুলো সম্পর্কে জানার আগে গাছ ঠিক কীভাবে ঘরের পরিবেশকে শীতল রাখতে সাহায্য করে তা জেনে নেওয়া যাক-

    অ্যালোভেরা

    ত্বকের যেকোনো সমস্যায় অ্যালোভেরার জুড়ি মেলা ভার। তবে এর পাতায় প্রচুর পরিমাণে জলীয় পদার্থ থাকার কারণে তা বাষ্পাকারে বের করে দেয় ফলে পরিবেশ ঠান্ডা থাকে। এ ছাড়া অ্যালোভেরা বাতাসে উপস্থিত ফরমালডিহাইড এবং বেনজিন শোষণ করে নেয়।

    ব্যাম্বু প্লাম

    এই গাছের লম্বা পাতা এয়ার হিউমিডিফায়ার এবং পিউরিফায়ার হিসেবে কাজ করে। এ ছাড়া পরিবেশ থেকে বেনজিন ও ট্রাইক্লোরো ইথাইলিন দূর করতে সাহায্য করে।

    ব্যাম্বু প্লাম

    উইপিং ফিগ

    ঘরের ভেতরে খুব সুন্দরভাবে এই গাছগুলো বেড়ে উঠে এবং গাছে প্রচুর পাতা থাকে ফলে স্বেদনও বেশি হয়। বাতাসে কোনো ভারী ধাতুর উপস্থিতি থাকলে তা দূর করে।

    স্নেক প্ল্যান্ট

    এই গাছের আরেকটি নাম রয়েছে, ‘মাদার ইন লস টাঙ’। এই গাছ অনেক রসালো এবং রাতে অক্সিজেন নিঃসরণ করে ফলে ঘরের বাতাস শীতল থাকে। অ্যালোভেরার মতো এই গাছগুলোও বাতাসে উপস্থিত ফরমালডিহাইড এবং বেনজিন শোষণ করে নেয়।

    পিস লিলি

    যে গাছে যত পাতা, সেই গাছ পরিবেশকে তত বেশি শীতল রাখে। আর এই গাছের পাতাগুলোও বেশ বড় বড়। পরিবেশ থেকে বিভিন্ন রকম বিষাক্ত পদার্থের পরিমাণ কমিয়ে আনে।

    বোস্টন ফার্ন

    ব্যাম্বু প্লামের মতো বোস্টন ফার্মও এয়ার হিউমিডিফায়ার এবং পিউরিফায়ার হিসেবে কাজ করে। বায়ুতে উপস্থিত নানা রকম উদ্বায়ী জৈব যৌগসমূহকে দূর করে।

    মানি প্লান্ট

    এটি একটি চমৎকার এয়ার হিউমিডিফায়ার হিসেবে কাজ করে। শুধু কি তাই, ঘরে ভেতরে থাকা নানা রকম দূষিত পদার্থ, যেমন-ফরমালডিহাইড, বেনজিন, জাইলিন এবং কার্বন মনোক্সাইড দূর করে।

    মানি প্লান্ট

    স্পাইডার প্লান্ট

    গাছ প্রেমীদের খুব পছন্দের একটি গাছ হচ্ছে-এই স্পাইডার প্লান্ট। খুব অল্প পরিশ্রমে আর সহজেই ঘরের ভেতরে এই গাছের চাষ হয়। ঘরের পরিবেশ ঠান্ডা রাখার পাশাপাশি বাতাসে উপস্থিত ক্ষতিকর দূষিত পদার্থ শোষণ করে নেয়।

    চাইনিজ এভারগ্রিন

    এর অনেকগুলো জাত রয়েছে। তবে ঘর ঠান্ডা রাখার জন্য লাস ফলিয়েজ জাতের গাছগুলোর তুলনা হয় না। এই গাছগুলোও বাতাসে উপস্থিত পদার্থগুলোকে দূর করে।

    রাবার প্ল্যান্ট

    এই গাছের পাতাগুলো বড় বড় তাই ঘর ঠান্ডা রাখার ক্ষমতাও এদের বেশি। বাতাসে উপস্থিত ফরমালডিহাইডকে শোষণ করে পরিবেশকে বিশুদ্ধ রাখতেও সাহায্য করে।


    লালসবুজের কণ্ঠ/তন্বী

    40Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর