৩১৪ রানে থামল ভারত, মুস্তাফিজের ৫ উইকেট - লালসবুজের কণ্ঠ
    বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:০৯ পূর্বাহ্ন

    ৩১৪ রানে থামল ভারত, মুস্তাফিজের ৫ উইকেট

    • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ২ জুলাই, ২০১৯

    লালসবুজের কণ্ঠ স্পোর্টস ডেস্ক:

    শুরুটা করেছিলেন দুই ওপেনার রোহিত শর্মা ও লোকেস রাহুল। আর শেষটা করলেন রিসাভ পান্থ। রোহিতের ১০৪, রাহুলের ৭৭ ও পান্থের ৪৮ রানের যোগফলে ভারত এজবাস্টনে বাংলাদেশের বিপক্ষে তুললো ৩১৪ রান।

    এজবাস্টনের এই উইকেটে ৩১৪ রান বেশ বড়ো স্কোরই বটে। তবে এই বিশ্বকাপে এরচেয়ে বেশি রান তাড়া করে ম্যাচ জেতার রেকর্ড যে আছে বাংলাদেশের!

    সেমিফাইনালে নাম লেখানোর জন্য এই ম্যাচে ঠিক যেমন ব্যাটিংয়ের প্রয়োজন ছিলো সেটাই করে দেখালো ভারত। টসে জিতে ব্যাটিং বীরত্ব দেখালো। আর ভারতের ইনিংসের পুরোটা সময় জুড়ে বাংলাদেশ যে ফিল্ডিং করলো সেটা নেহাতই-শিশুসুলভ! একেবারে শিক্ষানবিসের ঢংয়ের।

    সাকিবের হাতের ফাঁক দিয়ে বল গলে বাউন্ডারিতে। তামিম হাতে ক্যাচ নিয়েও ফেলে দিলেন। সেই সুবাদে ৯ রানে জীবন পাওয়া রোহিত শর্মা খেলে দিলেন ১০৪ রানের ইনিংস। মুশফিক উইকেটের পেছনে যথেচ্ছ লেগবাই দিলেন! পুরো দলের কোনো ফিল্ডার প্রথম চেষ্টায় বল ধরতেও পারছিলেন না যেন! প্রত্যেকের শরীরি ভাষায় কেমন যেন একটা ক্লান্তির স্পষ্টত ছাপ। অথচ এই দলটিই আফগানিস্তান ম্যাচের পর টানা পাঁচদিন বিশ্রামে ছিলো। লম্বা সেই বিশ্রামই কি ক্রিকেট মনোযোগে ঘাটতির বড়ো কারণ?

    কৌশল বদলে বাংলাদেশ এই ম্যাচে চারজন পেসার নিয়ে খেলে। স্পিনার মেহেদি মিরাজ বাদ পড়েন। ইনজুরির কারণে মাহমুদউল্লাহ একাদশে নেই। মাঠের একপ্রান্তের বাউন্ডারি বেশি ছোটো বলেই স্পিনার কমিয়ে বাড়তি পেসার নিয়ে একাদশ সাজায় বাংলাদেশ। সৌম্যও এই ম্যাচে ৬ ওভার বল করে ৩৩ রানে ১ উইকেট পান। শিকার করেন সেঞ্চুরিয়ান রোহিত শর্মার প্রাইজ উইকেট।

    রুবেল, মুস্তাফিজ, মাশরাফি, সাইফুদ্দিন এবং সৌম্য-সবমিলিয়ে বাংলাদেশ এই ম্যাচে পাঁচজন পেসার নিয়ে খেললো। একমাত্র স্পিনার সাকিব যথারীতি এই ম্যাচেও বল হাতে সবচেয়ে সফল। ১০ ওভারে ৪১ রানে ১ উইকেট পান সাকিব।

    ওপেনিং জুটিতে এই ম্যাচে চলতি বিশ্বকাপে নিজেদের সেরা সংগ্রহ তুলে নেয় ভারত। যোগ করে ১৮০ রান। ছাড়িয়ে যায় ওল্ড ট্রাফোর্ডে পাকিস্তানের বিপক্ষে গড়া ১৬০ রানকে। আর ব্যাট হাতে রোহিত শর্মা এই বিশ্বকাপে যা করছেন সেটা যে কোনো ব্যাটসম্যানের জন্য স্বপ্নের মতো। এক বিশ্বকাপে চার সেঞ্চুরি করে ফেললেন ভারতীয় এই ওপেনার। শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারা গেলো বিশ্বকাপে চার সেঞ্চুরি করে এই ক্লাবে এতোদিন একা ছিলেন। সেই ক্লাবের দ্বিতীয় সদস্য এখন রোহিত শর্মা। শুধু তাই নয়, চলতি বিশ্বকাপের সবচেয়ে বেশি ৫৪৪ রানের মালিকও এই ভারতীয় ওপেনার। অস্ট্রেলিয়ার ডেডিভ ওয়ার্নারের ৪১৬ রান এখন দ্বিতীয় সর্বাধিক।

    এজবাস্টনের এই ম্যাচে ভারতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের স্বস্তির সময়টুকু শুধু শেষ বেলায়। শেষের বোলিংটা কিছুটা হিসেবি করলো বাংলাদেশ। বিশেষ করে শেষ ওভারে মুস্তাফিজ দুর্দান্ত বোলিং করলেন। এই ওভারে রান দিলেন মাত্র ৪। উইকেট পড়লো তিনটি। ধোনি ক্যাচ আউট। ভুবেনশ্বর রানআউট। এবং শেষ বলে বুমরা বোল্ড! মুস্তাফিজ বিশ্বকাপে নিজের সেরা বোলিং করলেন এই ম্যাচে। ১০ ওভারে ৫৯ রানে ৫ উইকেট। বিশ্বকাপে সাকিবের পর দ্বিতীয় বাংলাদেশি হিসেবে এক ম্যাচে পাঁচ উইকেটের কৃতিত্ব দেখালেন মুস্তাফিজ।

    শেষের বোলিংয়ে বাংলাদেশ ভালো করায় ভারত আটকে গেলো ৩১৪ রানে। শেষ দশ ওভারে ভারত এই ম্যাচে রান তুললো মাত্র ৬৩। হারালো ৫ উইকেট!

    60Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর