হিজাব না পরায় সাংবাদিক আমানপোরের সঙ্গে সাক্ষাৎকার বাতিল করলেন ইরানের প্রেসিডেন্ট - লালসবুজের কণ্ঠ
    শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ১০:২৬ অপরাহ্ন

    হিজাব না পরায় সাংবাদিক আমানপোরের সঙ্গে সাক্ষাৎকার বাতিল করলেন ইরানের প্রেসিডেন্ট

    • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২

    নিউজ ডেস্ক, লালসবুজের কণ্ঠ:


    যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে গত বুধবার ইরানের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সিএনএনের সাংবাদিক ক্রিশ্চিয়ান আমানপোরের একটি সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে সাক্ষাৎকারটি বাতিল হয়েছে। কারণ ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির অনুরোধে সাক্ষাৎকারের সময় মাথায় হিজাব (স্কার্ফ) পরতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন ক্রিশ্চিয়ান আমানপোর।

    মার্কিন গণমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

    ঘটনার পরের দিন বৃহস্পতিবার খ্যাতিমান সাংবাদিক ক্রিশ্চিয়ান আমানপোর বলেন, ‘এক সপ্তাহ ধরে নানা পরিকল্পনার পর প্রায় ৮ ঘণ্টা ধরে আমরা লাইট, ক্যামেরা ও অনুবাদের সরঞ্জাম প্রস্তুত করেছিলাম। সাক্ষাৎকার শুরু হওয়ার ৪০ মিনিট পরে একজন সহকারী এসে বলেন, প্রেসিডেন্ট রাইসি আমাকে মাথায় স্কার্ফ পরতে বলছেন, কারণ এখন পবিত্র মহররম ও সফর মাস চলছে। কিন্তু আমি স্কার্ফ পরতে অস্বীকৃতি জানিয়েছি। এরপর তিনি সাক্ষাৎকারটি বাতিল করেছেন।’

    আরেকটি মার্কিন গণমাধ্যম সিবিএস নিউজ জানিয়েছে, অতীতে আমাপনপোর যখন ইরান বা আফগানিস্তানের মতো দেশে সাক্ষাৎকার গ্রহণের জন্য গিয়েছিলেন, তখন মাথায় স্কার্ফ পরেছিলেন। ক্রিশ্চিয়ান আমানপোর এক টুইটার পোস্টে বলেছেন, যে দেশে স্কার্ফ পরার প্রয়োজন নেই, সে দেশে আমি স্কার্ফ পরব না। আমি এখন নিউইয়র্কে আছি। এখানে মাথায় স্কার্ফ পরা সংক্রান্ত কোনো আইন নেই বা ঐতিহ্য নেই। এর আগে ইরানের কোনো প্রেসিডেন্ট এ ধরনের আবদার (মাথায় স্কার্ফ পরার) করেননি।

    ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, এ ব্যাপারে মন্তব্যের জন্য ইরান কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাঁরা কোনো মন্তব্য করেননি।

    উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে পুলিশ হেফাজতে থাকা ২২ বছর বয়সী তরুণী মাহসা আমিনির মৃত্যুর পর ইরানজুড়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। সঠিকভাবে হিজাব না পরার কারণে তেহরান থেকে আমিনিকে গ্রেপ্তার করেছিল ইরানের নৈতিকতা-বিষয়ক পুলিশ। পরে তাঁর মৃত্যু হলে পুলিশ দাবি করে, হৃদ্‌যন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মারা গেছেন। তবে সাধারণ মানুষের ধারণা, পুলিশের নির্যাতনের কারণেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে। এরপর হিজাব আইন সংস্কারের দাবিতে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।


    লালসবুজের কণ্ঠ/এআর

    12Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর