শিক্ষার্থীদের উপ-বৃত্তির টাকা নিয়ে নিচ্ছেন হ্যাকাররা - লালসবুজের কণ্ঠ
    রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ০৩:১৮ পূর্বাহ্ন

    শিক্ষার্থীদের উপ-বৃত্তির টাকা নিয়ে নিচ্ছেন হ্যাকাররা

    • আপডেটের সময় : বুধবার, ৮ জুন, ২০২২

    রাজশাহী প্রতিবেদক:


    রাজশাহীর তানোরে শিক্ষার্থীদের উপ-বৃত্তির টাকা নিয়ে নিচ্ছেন হ্যাকাররা। এঘটনার প্রতিকার চেয়ে তানোর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর একটি অভিযোগ দাযের করেছেন এক শিক্ষার্থীর পিতা।

    অভিযোগ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, তানোর পৌর এলাকার বেলপুকুরিয়া গ্রামের পরিতোষ চন্দ্রের মেয়ে তালন্দ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেনীতে পড়া অবস্থায় উপ-বৃত্তির জন্য মনোনিত হলে নগদ এর পক্ষ থেকে স্কুলে গিয়ে উপ-বৃত্তির জন্য তার বাবার মোবাইলে নগদ একাউন্ট খুলে দেয়া হয়।

    ৬ ষ্ঠ শ্রেনী থেকে বর্তমানে পুজা ৭ ম শ্রেনীতে পড়ছেন। এ অবস্থায তার ক্লাশের অন্যরা উপ-বৃত্তির টাকা পেলেও পুজা উপ-বৃত্তির টাকা পাচ্ছেন না।

    এ অবন্থায় স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করা হলে স্কুল কর্তৃপক্ষ জানায যে সকলের মত পুজাও নগদ একাউন্টের মাধ্যমে উপ-বৃত্তির টাকা অবশ্যই পাবে।

    উপ-বৃত্তির জন্য দেয়া পিতার মোবাইল নিয়ে নগদ তানোর অফিসে যোগাযোগ করেন ওই ছাত্রীর পিতা পরিতোষ চন্দ্র। নগদ কর্তৃপক্ষ উপ-বৃত্তির জন্য দেয়া মোবাইল নম্বর যাচাই করে দেখেন উপ-বৃত্তির টাকা ওই একাউন্টে এসেছে।

    কিন্তু শিক্ষার্থী পুজার উপ-বৃত্তির টাকা ০১৭৪৫-৪২২০০৮ নম্বর একাউন্টে আসা মাত্রই হাাকাররা ০১৯১০-১৭৮৮৪০ নম্বর মোবাইলে দফায় দফায় উপ-বৃত্তির ৪হাজার ৩ শ’ টাকা তুলে নিয়েছেন।

    দফায় দফায় ০১৮১০১৭৮৮৪০ এই নম্বরে তা ক্যাশ আউট দিয়ে পার করা হয়েছে। সর্বশেষ গত ২২ মে ২২শ’ টাকা ক্যাশ আউট দিয়ে পার করা হয়েছে।

    ফলে, নিরুপাই পুজার পিতা এর প্রতিকার চেয়ে তানোর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

    এব্যাপারে অভিযোগকারী তালন্দ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী পুজার পিতা পরিতোষ চন্দ্র বলেন, ওই স্কুলের আরো বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীরও একই অবস্থা তারা উপ-বৃত্তির টাকা পাচ্ছেন না।

    তিনি বলেন, স্কুলে গিয়ে নগদ কর্তৃপক্ষ থেকে ছাত্রীদের উপ-বৃত্তির জন্য একাউন্ট খুলে দিয়েছেন।

    তিনি বলেন, যারা স্কুলে গিয়ে ওই সব ছাত্রীদের নগদে একাউন্ট খুলে দিয়েছেন তারা পার্সওয়ার্ড জানার সুবাদে ছাত্রীদের টাকা একাউন্টে আসার সাথে সাথেই হ্যাক করে তুলে নিচ্ছেন।

    এব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে তালন্দ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সালেহা খাতুন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, উপ-বৃত্তির জন্য নগদ কর্তৃপক্ষ থেকে স্কুলে এসে শিক্ষার্থীদের তারা একাউন্ট খুলে দিয়েছেন।

    কিন্তু উপ-বৃত্তির জন্য যোগ্যসম্পূর্ণ অনেক শিক্ষার্থী উপ-বৃত্তির টাকা পাননি এমন অভিযোগ শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন।

    তিনি বলেন, ছাত্রীদের মোবাইল থেকে টাকা কেউ উত্তোলন করে নিয়ে আমাদের কি করার আছে? , তবে, এমন গুরুতর বিষযে আমরা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসকে বিষয়টি অবহিত করে থাকি এবিষয়টাও জানিয়েছি বলেও জানান তিনি।

    এব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে তানোর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সিদ্দিকুর রহমান বলেন, অভিযোগ পাওয়া গেছে প্রয়োজনীয ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি৷


    টি,আর/তন্বী

    12Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর