শত্রুতার জেরে বিষ দিয়ে ২ লাখ টাকার মাছ নিধন - লালসবুজের কণ্ঠ
    বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬:২৩ পূর্বাহ্ন

    শত্রুতার জেরে বিষ দিয়ে ২ লাখ টাকার মাছ নিধন

    • আপডেটের সময় : বুধবার, ২৬ জুন, ২০১৯

    বরেন্দ্র অঞ্চল প্রতিনিধি: রাজশাহীর তানোরে পূর্বসত্রুতার জেরে এক সেনা সদস্য এর একটি পুকুরে রাত্রে আধারে বিষ প্রয়োগ করে দেশিও জাতের টেংরা,পদ্মাসহ না প্রকার প্রায় দুই লাখ টাকার মাছ নিধন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
    মঙ্গলবার দিবাগত রাতে উপজেলার মোহমদপুর গ্রামের বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের পাশে লিজকৃত পুকুরে এ বিষ প্রয়োগ করা হয়। এবিষয়ে মোহমদপুর গ্রামের সেনা সদস্যের শ্বশুর আতাউর রহমান বাদি হয়ে মু-ুমালা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে বুধবার বিকালে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

    অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে,আব্দুল হাদি নামের এক সেনা সদস্য(সিলেটে কর্মরত)তার মামা ও শ্বশুর বাড়ি তানোর উপজেলার পাঁচন্দর ইউপির মোহমদপুর গ্রামে। সে সুবাদে আব্দুল হাদি দুই বছর আগে মোহমদপুর মৌজার ৪০ শতকের একটি পুকুর একই গ্রামের আদিবাসি পরমেশন নামের এক ব্যাক্তি কাছে তিন বছরের জন্য লিজ নেন॥ সে লিজকৃত পুকুরে দেশিও প্রজাতীর টেংরা,পদ্মা,রুই,কাতলাসহ নানা প্রকার মাছ ছাষ শুরু করেন।

    মঙ্গলবার দিবাগত রাত্রে কে বা কারা পুকুরে বিষ প্রয়োগ করেন। সকালে পুকুরে থাকা টেংরা,পদ্মাসহ সকল মাছ ভেসে উঠলে স্থানীয়রা দেখে খরব্ দেন তার শ্বশুরকে। খবর পেয়ে শ্বশুর ও মামারা মিলে জেলে ডেকে পুকুরে ভেসে থাকা মরা মাছ তুলে ফেলেন। পরে মু-ুমালা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে অভিযোগ দেন।

    সেনা সদস্য আব্দুল হাদি মোবাইলে জানান,তার লিজকৃত পুকুরে দেশি জানের টেংরাও পদ্মাই প্রায় ১০ থেকে ১২ মন ছিল। যার বাজার মুল্য দেড় থেকে দুই লাখ টাকা।
    তিনি আরো জানান,প্রায় দুই বছর আগে প্রতিবেশি কয়েক জনের সাথে জমি নিয়ে আমার দ্বন্দ ছিল। এখন রাতের আধারে কে বা কারা এমন কাজ করলেন তা বলতে পারছিনা। আমি রাজশাহী-র‌্যাব-৫ ও মু-ুমালা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে অভিযোগ করেছি।

    মু-ুমালা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ওসি তদন্ত সাইফুল ইসলাম বলেন,সেনা সদস্যের শ্বশুর আতাউর রহমান বাদি হয়ে মাছ নিধনের অভিযোগ করেছেন। পুলিশ তদন্ত করছেন। আইনগত ব্যবস্থার প্রক্রিয়া চলছে।

    116Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর