রাজশাহী থেকে ছেলের চাকুরির খোঁজে গিয়ে অপহরন, লক্ষ্মীপুরে উদ্ধার - লালসবুজের কণ্ঠ
    বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ০৪:২৭ পূর্বাহ্ন

    রাজশাহী থেকে ছেলের চাকুরির খোঁজে গিয়ে অপহরন, লক্ষ্মীপুরে উদ্ধার

    • আপডেটের সময় : রবিবার, ৩১ জুলাই, ২০২২

    তাবারক হোসেন আজাদ, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:


    নুর মোহাম্মদ সরদার (৫০) ও নাজমা আক্তার (৪০) দম্পত্তি। তাদের বসবাস রাজশাহী শহরের চন্দ্রিমা থানার শিরোইন কলোনীতে।

    তাদের বড় ছেলে মো. শাহিনুর রহমান শিক্ষিত বেকার যুবক। সুন্দর একটি চাকরি হবে, পরিবার নিয়ে হাসি আনন্দে থাকবে সবাই এ আশায় দিন কাটবে তাদের। তাই পরিবারের সবাই শাহিনুরের জন্য ভালো চাকুরির সন্ধার করতে থাকেন। হঠাৎ তাদের ছেলেকে ভালো বেতনে চাকুরিসহ বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা দেয়ার লোভনীয় প্রস্তাব দেয় প্রতারকচক্র। এ সুযোগ হাতছাড়া করতে না পেরে ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে নাজমা আক্তা চলে আসেন লক্ষ্মীপুরে রায়পুর শহরের বাসটার্মিনাল এলাকায়।

    রায়পুর শহরে আসতে দেরি-প্রতারকচক্র কৌশলে ছেলে-মেয়েকে দাঁড় করিয়ে নাজমাকে অপহরন করতে দেরি হয়নি। তাকে আটক রেখে এক লক্ষ টাকা মুক্তিপন দাবি করলো। না দিলে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। মুক্তিপণের দাবিকৃত টাকার মধ্যে ৪০ হাজার টাকা দিয়েও মা’কে ফেরত না পেয়ে রায়পুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়। অবশেষে রায়পুর থানার ওসির চার ঘন্টার বিশেষ অভিযানে অপহৃত ওই নারীকে উদ্ধার করা হয়।

    ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার (৩০জুলাই) লক্ষ্মীপুরের রায়পুর ও রামগঞ্জ উপজেলার সীমান্তবর্তি পশ্চিম মাছিমপুর গ্রামের আজিজ উল্যা পাটোয়ারী বাড়ির আবদুল মান্নান পাটোয়ারীর ছেলে আনোয়ার হোসেন ওরপে দেলোয়ার হুজুরের বসতঘরে।

    পুলিশ ও ক্ষতিগ্রস্থ নাজমা বেগম বলেন, বড় ছেলে শাহিনুর রহমান বেকার থাকায় চাকুরির সন্ধান করছিলাম। হঠাৎ একটি চাকুরির লোভনীয় অপার পান রায়পুর থেকে। সেই সূত্র ধরে নাজমা ও মেয়ে নাজমুন নাহার সুমিকে নিয়ে শনিবার (৩০ জুলাই) রাজশাহী থেকে বাসযোগে বিকেলে রায়পুরে আসে। চাকুরিদাতা প্রতারক চক্র তাদের দেওয়া ঠিকানা অনুযায়ী রায়পুর আসার পরপরই শাহিনুর রহমানকে আহত করে তার মা’কে অপহরণ করে। একপর্যায়ে তাঁর মা’কে জীবিত ফেরত পেতে হলে বিকাশে ১ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন তারা। পরে নিরুপায় হয়ে একপর্যায়ে ছেলে শাহিনুর রহমান ও মেয়ে নাজমুন নাহার সুমি তাদের মায়ের বিকাশে ৪০ হাজার টাকা পাঠায় এবং পিনকোড জানিয়ে দেয় প্রতারকদের। বাকি টাকা পাঠানোর জন্য নির্দেশ দিতে থাকে চক্রটি। কিন্তু বাকি টাকা পাঠাতে অপারগতা প্রকাশ করে এবং রাত ৯ টায় রায়পুর থানায় তাৎক্ষণিক সাধারণ ডায়েরি করেন।

    পরে পুলিশের উপস্থিতি বুঝতে পেরে প্রতারক চক্র মহিলার ৭০ হাজার টাকার স্বর্ণালংকারসহ মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে তাঁকে রাস্তায় ফেলে যায়। তখন নাজমা বেগম স্থানীয় এক পরিবারের সাহায্য চান । তখন পুলিশ পশ্চিম মাছিমপুর গ্রামের আজিজ উল্যা পাটোয়ারী বাড়ির আবদুল মান্নান পাটোয়ারীর ছেলে আনোয়ার হোসেন ওরপে দেলোয়ার হুজুরের ঘরে থেকে উদ্ধার করেন।

    এঘটনায় রায়পুর থানার ওসি শিপন বড়ুয়া জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েই রাজশাহি থেকে রায়পুরে আসা ভিকটিমকে প্রতারকচক্র থেকে উদ্ধার করি। সঙ্গবদ্ধ-প্রতারক চক্রকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।


    আজাদ/এআর

    43Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর