1. [email protected] : News room :
যৌতুক না পেয়ে পুলিশ কনস্টেবলের বিরুদ্ধে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ - লালসবুজের কণ্ঠ
শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ১১:০৬ অপরাহ্ন

যৌতুক না পেয়ে পুলিশ কনস্টেবলের বিরুদ্ধে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ

  • আপডেটের সময় : বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

নাটোর প্রতিনিধি:

নাটোরের বাগাতিপাড়ায় পিংকি বেগম (২২) নামে এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দেওয়া অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত গৃহবধূ উপজেলার বাজিতপুর গ্রামের আবুল কালাম আজাদের মেয়ে এবং পুলিশ কনস্টেবল মাসুমের স্ত্রী।

মঙ্গলবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে শ্বশুরবাড়ি থেকে পিংকি বেগমের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত পিংকির শ্বশুরবাড়ির লোকজনের দাবি তিনি ঝগড়া-বিবাদের জেরে আত্মহত্যা করেছেন। তবে পিংকির বাবার দাবি পুলিশ সদস্য জামাতা তার মেয়েকে হত্যা করে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলিয়ে রেখেছে।

পিংকির বাবা আবুল কালাম আজাদ জানান, বাগাতিপাড়ার রহিমানপুর গ্রামের মানত আলীর ছেলে পুলিশ কনস্টেবল মাসুমের সঙ্গে দুই বছর আগে প্রেমের সম্পর্কের পর বিয়ে হয় পিংকির। তবে বিয়ের পর যৌতুকের দাবিতে বিভিন্ন সময় পিংকিকে মারধর করতেন তার স্বামী মাসুম।

আবুল কালাম আজাদ বলেন, মঙ্গলবার বিকেলে পিংকি আমার বাড়িতে আসতে চাইলে মাসুম বাধা দেয়। ঝগড়ারত অবস্থায় পিংকি আমাকে ফোন দেয়, ফোনেই মেয়েকে নির্যাতনের শব্দ শুনতে পাই আমি। পরে রাতে জানতে পারি পিংকি আত্মহত্যা করেছে!

মেয়েকে হত্যার অভিযোগ করে পিংকির বাবা বলেন, আমার অন্তঃসত্ত্বা মেয়েকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। আমার মেয়ে কখনোই আত্মহত্যা করতে পারে না।

এ ব্যাপারে নাটোর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত জানান, মরদেহ উদ্ধারের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ ঘটনায় তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

172Shares

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর