‘মৃত্যুর ৫ দিন’ পর রোগীকে মৃত ঘোষণা ইউনিভার্সেল মেডিকেলে! - লালসবুজের কণ্ঠ
    শনিবার, ০৮ অক্টোবর ২০২২, ০১:৪৫ পূর্বাহ্ন

    ‘মৃত্যুর ৫ দিন’ পর রোগীকে মৃত ঘোষণা ইউনিভার্সেল মেডিকেলে!

    • আপডেটের সময় : শনিবার, ২২ জুন, ২০১৯

    ঢাকা প্রতিবেদক
    মুনাফার লোভে মাত্রাতিরিক্ত ডায়ালাইসিসে মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে রাজধানীর মহাখালীতে ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বিরুদ্ধে। কিডনিজনিত জটিলতা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি শহীদুল ইসলাম আগে মারা গেলেও ৫দিন পর হাসপাতাল তা স্বীকার করেছে বলে অভিযোগ পরিবারের।

    হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এসব অভিযোগ অস্বীকার করলেও ৩ দিন আগে রোগীর পরিবারের বিপক্ষে থানায় জিডির কথা জানা যায়।

    হাসপাতালের রেকর্ড বলছে, ২০ দিনে ২৩ বার ডায়ালাইসিস দেয়া হয়েছে কিডনি জটিলতায় মারা যাওয়া শহীদুল ইসলামের শরীরে। মৃত শহীদুল ইসলামের ছেলের অভিযোগ, মুনাফার লোভে উপর্যুপরি ডায়ালাইসিসেই প্রাণ হারিয়েছেন তার বাবা।

    গেল মাসে কিডনিজনিত সমস্যা নিয়ে মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ষাটোর্ধ্ব শহীদুল ইসলাম। ভর্তির তিন দিন পর বিএসএমএমইউতে স্থানান্তর করতে চাইলেই শারীরিক অবস্থার অবনতির কথা বলে রোগীকে আইসিইউতে নিয়ে যায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এরপর দফায় দফায় ডায়ালাইসিস বাবদ এক মাসেই বিল আসে দশ লক্ষাধিক টাকা। পরিবারের অভিযোগ, গেল সোমবার( ১৭ জুন) থেকে রোগীর কোনো ধরনের মুভমেন্ট না থাকলেও শুক্রবার (২১ জুন) রাতে রোগীকে মৃত ঘোষণা করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

    মৃত শহীদুল ইসলামের ছেলে বলেন, আমার বাবাকে নিয়ে ১ মাস ৭দিন ধরে উনারা অনেক নাটক এবং ব্যবসা করছে। ডাক্তারকে বললাম এই বয়সে বাবা এত ডায়ালাইসিস একসাথে নিতে পারবে?

    তবে এসব অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দেয় হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

    ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. আশিষ কুমার চক্রবর্তী বলেন, এই ধরণের রোগী একবার ভালো হয় আবার অসুস্থ হয়। উনার বাবাকে যতটুকু ট্রিটমেন্ট দেওয়া দরকার ততটুক ট্রিটমেন্ট দেওয়া হয়েছে।

    আয়েশা মেমোরিয়াল হিসেবে পরিচিত হাসপাতালটির নতুন নাম ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। এর আগেও পুরনো এই হাসপাতালের বিরুদ্ধে অপচিকিৎসার অভিযোগ পাওয়া যায়

    65Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর