1. [email protected] : News room :
ভিকারুননিসার ছাত্রী অরিত্রীর দুই শিক্ষকের বিচার শুরু - লালসবুজের কণ্ঠ
শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ০৮:২৯ পূর্বাহ্ন

ভিকারুননিসার ছাত্রী অরিত্রীর দুই শিক্ষকের বিচার শুরু

  • আপডেটের সময় : বুধবার, ১০ জুলাই, ২০১৯

মহানগর সংবাদদাতা.ঢাকা:

রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্রী অরিত্রী অধিকারীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলার দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত।

বুধবার (১০ জুলাই) ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আগামী ২৭ অক্টোবর মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ধার্য করেছেন।

মামলার দুই আসামি হলেন- ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের তৎকালীন অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস এবং শাখা প্রধান জিনাত আখতার।

গত ৪ ডিসেম্বর পল্টন থানায় অরিত্রী অধিকারীর বাবা দিলীপ অধিকারী এ দুই শিক্ষকসহ তিনজনকে আসামি করে মামলা করেন। দুই শিক্ষক আদালতে নিজেদের নির্দোষ দাবি করেছেন।

মামলায় দিলীপ অধিকারীর বাবা অভিযোগ করেন, পরীক্ষা চলার সময় শিক্ষক অরিত্রীর কাছে মুঠোফোন পান। মুঠোফোনে নকল করেছে; এমন অভিযোগে অরিত্রীসহ মা-বাবাকে স্কুলে ডাকা হয়। দিলীপ অধিকারী স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে স্কুলে গেলে ভাইস প্রিন্সিপাল তাদের অপমান করেন এবং রুম থেকে বের হয়ে যেতে বলেন। একই সঙ্গে মেয়ের টিসি (স্কুল ছাড়পত্র) নেওয়ার জন্য বলা হয়। এরপর প্রিন্সিপালের রুমে গেলে তাদের সঙ্গে একই আচরণ করা হয়। এ সময় অরিত্রী দ্রুত প্রিন্সিপালের রুম থেকে বের হয়ে যায়। পরে দিলীপ অধিকারী বাসায় গিয়ে দেখেন, অরিত্রী তার রুমে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়না দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে ঝুলছে। শান্তিনগরের বাসা থেকে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়। ৩ ডিসেম্বর বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে চিকিৎসকরা অরিত্রীকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

মামলার পরদিন পল্টন থানা-পুলিশ শ্রেণি শিক্ষক হাসনা হেনাকে গ্রেফতার করে আদালতে হাজির করে। গত ৯ ডিসেম্বর তিনি জামিন পান।

মামলাটি তদন্ত করে গত ২৮ মার্চ নাজনীন ফেরদৌস ও জিনাত আখতারের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। এ মামলা থেকে অব্যাহতি পান হাসনা হেনা।

অরিত্রী অধিকারী মারা যাওয়ার পর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্রীরা আন্দোলনে নামে। বিচার না হওয়া পর্যন্ত ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের কর্মসূচি দেয়। পরে আশ্বাসে তারা কর্মসূচি প্রত্যাহার করে।

44Shares

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর