ভারতে একই পরিবারে নয় জনের রহস্যজনক মৃত্যু - লালসবুজের কণ্ঠ
    সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৮:৫৭ পূর্বাহ্ন

    ভারতে একই পরিবারে নয় জনের রহস্যজনক মৃত্যু

    • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ২১ জুন, ২০২২
    ছবি : সংগৃহীত

    লালসবুজের কণ্ঠ, আন্তর্জাতিক ডেস্ক:


    ভারতের মহারাষ্ট্রের সাংলি জেলায় একই পরিবারে নয় জনের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।

    সোমবার (২০ জুন) সকালে সাংলি জেলাধীন মহিশাল গ্রামে এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে।

    জানা গেছে, দুই ভাইয়ের একত্রিত পরিবারে মোট নয় জন সদস্য ছিলো। সোমবার সকালে পোপাট ভ্যানমোর ও মানিক ভ্যানমোর নামের দুই ভাইয়ের পরিবারের নয় সদস্যকে তাদের নিজ বাড়িতে মৃত অবস্থায় দেখতে পায় গ্রামবাসী। পরে খবর পেয়ে পুলিশ এসে মরদেহগুলো উদ্ধার করে।

    পুলিশ জানিয়েছে যে, প্রতিদিন তারা একটি বাড়ি থেকে দুধ আনতেন। কিন্তু ঘটনার দিন দুই ভাইয়ের পরিবার থেকে কেউই দুধ আনতে যাননি। তাই সন্দেহ সৃষ্টি হলে গ্রামের একটি মেয়ে কেন আসেনি তা জানতে মানিক ভ্যানমোরের বাড়িতে যায়। তখনই সে মৃতদেহগুলো দেখতে পায়।

    এ সময় পরিবারের সকল সদস্যের প্রাণহীন শরীর বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকতে দেখা গেছে। ঘরের বিভিন্ন জায়গায় কোথাও তিনটি, কোথাও দুটি- এভাবেই পড়ে ছিলো নয়টি মরদেহ। আর এই রহস্যজনক মৃত্যুর খবরে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে সমগ্র জেলাজুড়ে।

    জানা যায়, মানিক ভ্যানমোরের বাড়িতে ছয়টি মৃতদেহ পাওয়া গেছে- তার নিজের, তার স্ত্রী, মা, মেয়ে, ছেলে এবং ভাগ্নের (পোপট ভ্যানমোরের ছেলে)। অপরদিকে পোপট ভ্যানমোর, তার স্ত্রী এবং মেয়ের লাশ পাওয়া গেছে অন্য বাড়িতে।

    এ বিষয়ে ইন্সপেক্টর জেনারেল লোহিয়া বলেন, “পুলিশ উভয় স্থান থেকে সুইসাইড নোট পেয়েছে এবং তারা সেগুলো বিশ্লেষণ করছে।” তবে পুলিশের ধারণা তারা সবাই বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেছেন। প্রাথমিকভাবে পুলিশ এটিকে একটি চুক্তিবদ্ধ আত্মহত্যার ঘটনা বলে সন্দেহ করছে।

    নিহতেরা হলো পোপাট ইয়ালাপ্পা ভানমোর (৫২), সঙ্গীতা পোপাট ভানমোর (৪৮), অর্চনা পোপাট ভানমোর (৩০), সুভম পোপাট ভানমোর (২৮), মানিক ইয়ালাপ্পা ভানমোর (৪৯), রেখা মানিক ভানমোর (৪৫), আদিত্য মানিক ভানমোর (১৫), অনিতা মানিক ভানমোর (২৮) ও আক্কাটাই মানিক ভানমোর (৭২)।

    নিহতদের মধ্যে ওই দুই ভাইয়ের মা, তাদের স্ত্রী ও চার সন্তান ছিল।

    প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, ভ্যানমোর ভাইদ্বয় গ্রামের বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে প্রচুর অর্থ ধার করেছিলেন। অনেকের ধারণা, ঋণের ভারে জর্জরিত হয়ে হতাশায় পরিবারের সবাইকে নিয়ে আত্মহত্যা করেছেন দুই ভাই।

    সূত্র: এনডিটিভি


    লালসবুজের কণ্ঠ/এআর

    0Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর