বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন আ.লীগের সব প্রার্থী - লালসবুজের কণ্ঠ
    শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:০৪ পূর্বাহ্ন

    বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন আ.লীগের সব প্রার্থী

    • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২

     

    নিউজ ডেস্ক লালসবুজের কণ্ঠ:


    ফেনী জেলা পরিষদ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হচ্ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান ও আট সদস্য প্রার্থী। জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন এমন তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বর্তমান প্রশাসক খায়রুল বাশার মজুমদার তপন ও সদস্য পদে জেলা আওয়ামী লীগের মনোনীত আট প্রার্থী ছাড়া অন্য কেউ মনোনয়নপত্র জমা দেননি। বিধি অনুযায়ী মনোয়নপত্রের বৈধতা যাচাই-বাছাইয়ে চূড়ান্ত হলে প্রত্যক্ষ ভোট ছাড়াই তাদের বিজয়ী ঘোষণা করতে কোনও বাধা থাকবে না।

    সূত্র জানায়, ছয়টি সাধারণ সদস্য ও দুটি সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১ নম্বর ওয়ার্ডে ফুলগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাইফুল ইসলাম, ২ নম্বর ওয়ার্ডে ছাগলনাইয়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী ওমর ফারুক, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে জেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু তালেব জেকব, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে সদর উপজেলা যুবলীগ সভাপতি নুরুল আফছার আপন, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে দাগনভূঞা পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি খায়েজ আহাম্মদ, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে চরছান্দিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহিম মানিক, সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডে জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লায়লা জেসমিন বড়মনি ও ৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডে দাগনভূঞা উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য শাহিদা আক্তার শেফালী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

    একক প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী পরশুরামের চিথলিয়া ইউনিয়নের খায়রুল বাশার মজুমদার তপন।

    জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাভোকেট হাফেজ আহমেদ বলেন, জেলা পরিষদ নির্বাচনে এ বছর চেয়ারম্যান পদে দলীয় কোনও প্রার্থীকে সুপারিশ করেনি জেলা আওয়ামী লীগ। তবে চেয়ারম্যান পদের জন্য দলের কাছে আবেদন করেছিলেন ছয় প্রার্থী। তাদের মধ্যে তপনকে পুনরায় দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।

    আটটি সদস্য পদে দলীয় প্রার্থী বাছাই করে জেলা আওয়ামী লীগ। দল থেকে মনোনয়ন পেতে আটটি সদস্য পদে আবেদন করেছিলেন ১৩০ জন। এর আগে পাঁচ বছর মেয়াদ পূর্ণ হওয়ায় গত ২৩ আগস্ট দেশের ৬১ জেলা পরিষদ নির্বাচনে তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

    তফসিল অনুযায়ী, আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর মনোনয়নপত্র বাছাই করা হবে। মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের বিরুদ্ধে আপিল দায়েরের সময় ১৯ থেকে ২১ সেপ্টেম্বর, আপিল নিষ্পত্তি ২২ থেকে ২৪ সেপ্টেম্বর। অন্যদিকে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৫ সেপ্টেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে ২৬ সেপ্টেম্বর। আর ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ হয়েছে ১৭ অক্টোবর।

     


    লালসবুজের কণ্ঠ/এস এস

    0Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    এই বিভাগের আরও খবর