1. [email protected] : News room :
পর্যটনের অপার সম্ভাবনা চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৫০ স্পট - লালসবুজের কণ্ঠ
শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ১০:২৭ অপরাহ্ন

পর্যটনের অপার সম্ভাবনা চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৫০ স্পট

  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
আমের জেলা চাঁপাইবাবগঞ্জে পর্যটন শিল্পের বিকাশে রয়েছে অপার সম্ভাবনা। বিশ্বের কাছে তুলে ধরার মতো অনেক কিছুই রয়েছে এ জেলার। ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক এ কে এম তাজকির-উজ-জামান এ প্রতিবেদককে জানান, এ জেলা অনেক দিক থেকেই বিখ্যাত, তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে আম। আমের পাশাপাশি দেশের মানুষ জানে না এখানে রয়েছে পুরাকীর্তিসমূহ। যেগুলো আক্ষরিক অর্থেই অত্যন্ত মূল্যবান ও সমৃদ্ধ এবং দেশের মানুষ এটা জানলে পর্যটকরা এখানে আসতে আগ্রহী হবে।

শেখ হাসিনা সেতু

এছাড়া রয়েছে উচ্চ দরের সংস্কৃতি, এখানকার গম্ভীরা ও আলকাপ সারাদেশে বিশেষভাবে পরিচিত। পাশাপাশি রয়েছে বিভিন্ন রকমের কুটির শিল্প যেগুলো পর্যটকদের আকৃষ্ট করে। এ কারণে টেকসই উন্নয়ন কর্মপরিকল্পনা তৈরীর মাধমে সরকার প্রথমত আম কেন্দ্র্রিক পর্যটন উন্নয়ন এবং এর মাধ্যমে চাঁপাইনবাবগঞ্জকে উন্নয়ন সম্ভব। এটি পরিকল্পনার অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এর পাশাপাশি জেলার কর্মপরিকল্পনা তৈরী করা হয়েছে তার মধ্যেও ভ্রমন স্থানগুলোকে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে ট্যুর গাইডদের নিয়ে ভ্রমনস্থানগুলোকে চিহ্নিত করা হচ্ছে। সেখানে খাবারের পানি, টয়লেট, গাড়ি পার্কিং এর ব্যবস্থাসহ বিভিন্ন নাগরিক সুবিধা গ্রহণ করা হয়েছে।

এছাড়া, ভ্রমনস্থানগুলোকে গুগল ম্যাপের মাধ্যমে অতি সহজেই বুঝতে পারে, সে আলোকে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে চাঁপাইনবাবগঞ্জে ভ্রমণ ম্যাপ তৈরী করা চলমান রয়েছে। এতে করে পর্যটকরা অতি সহজেই তথ্যগুলো জানতে পারবে। বিশ^ পর্যটন দিবসের আলোকে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে জেলার ভবিষ্যত প্রজন্মকে এ বিষয়ে জানান দেয়া। পর্যটন বিকাশের মাধ্যমে এ অঞ্চলের অর্থনীতির চাকা আরো সমৃদ্ধ হবে।
উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত চাঁপাইনবাবগঞ্জে শেখ হাসিনা সেতু সংলগ্ন এলাকায় বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অর্র্থায়নে ৪২ কোটি টাকা ব্যয়ে ৪৪ একর খাস জমির ওপর গড়ে উঠতে যাচ্ছে পর্যটন কেন্দ্র। এ পর্যটন কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের সকল কার্যক্রম ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে। এখানে পাঁচতারা হোটেল, টেনিস মাঠ, যাদুঘর, সুইমিংপুলসহ অন্যান্য স্থাপনা নির্মাণ করা হবে। যাতে করে দেশী-বিদেশী পর্যটক এসে এ জেলা অর্থনৈতিক নতুন গতি পাবে।

প্রকৃতির নৈসর্গিক লীলাভূমি বাবুডাইং


জেলার উল্লেখযোগ্য পুরাকীর্তি ও দর্শনীয় স্থানসমূহ জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে জানা গেছে।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয় হতে পাওয়া তথ্যমতে এখানে মোট ৫০টি দর্শনীয় স্পট রয়েছে।
সেগুলো হচ্ছে, দারসবাড়ি মাদ্রাসা, রহনপুর সমাধিসৌধ, ৫’শ বছরের পুরানো তেঁতুল গাছ, নওদা বুরুজ, কানসাটের জমিদার বাড়ী, কোতওয়ালী দরওয়াজা, দাফেউল বালা, বারোঘরিয়ার কাছারী বাড়ী, বালুয়া দিঘী, ছোট সোনা মসজিদ, ছোট সোনা মসজিদের নিকটস্থ সমাধি, দারসবাড়ি মসজিদ ও মসজিদের প্রস্তরলিপি ও ঢিবি, শাহ নেয়ামতউল্লাহ ওয়ালী মসজিদ/তিন গম্বুজ মসজিদ, শাহ নেয়ামতউল্লাহ (রঃ) ওয়ালী সমাধি, তহা-খানা, খনিয়াদিঘী মসজিদ, ধনাইচক মসজিদ, মহারাজপুর প্রাচীন মসজিদ, চাঁপাই জামে মসজিদ, মাঝপাড়া মসজিদ, জোড়ামঠ, গম্ভীরা গান, প্রকৃতির নৈসর্গিক লীলাভূমি বাবুডাইং, বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীরের সমাধি, চামচিকা মসজিদ. স্বপ্নপল্লী, নাচোলের রাজবাড়ী, ধানীচক মসজিদ, দুধ পুকুর ঢিবি, টিয়াকাটি কালভার্ট ১ ও ২, গৌড় গ্রুপ অব মনুমেন্টস, খোজার ঢিবি, কমুরা দীঘি ঢিবি. গৌড়স্থ দুর্গ প্রাচীর (বাংলাদেশ অংশ), গোয়াহিন বাঁধ, নীলকুঠি, ষাঁড়বুরুজ, ঐতিহাসিক আলী শাহপুর মসজিদ, হযরত বুলন শাহ (রাঃ) মাজার, ৪৯. মহারাজপুর মঞ্চ এবং বারঘরিয়া জমিদারবাড়ী ও মঞ্চ।

617Shares

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর