তবে কি ময়নাই করে ময়নাতদন্ত? - লালসবুজের কণ্ঠ
    শনিবার, ০৮ অক্টোবর ২০২২, ০১:৫৬ পূর্বাহ্ন

    তবে কি ময়নাই করে ময়নাতদন্ত?

    • আপডেটের সময় : শনিবার, ২০ আগস্ট, ২০২২

    নিউজ ডেস্ক, লালসবুজের কণ্ঠ:


    অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় মৃতদেহ বিশ্লেষণ করে মৃত্যুর কারণ জানার যে চেষ্টা করা হয়, তাকেই পোস্টমর্টেম বা ময়নাতদন্ত বলা হয়। পোস্টমর্টেম শব্দটি অটোপসি, নিক্রোপসি ইত্যাদি দ্বারাও বোঝানো হয়ে থাকে।

    ইংরেজিতে যাকে বলে ‘পোস্টমর্টেম’, বাংলায় তাকেই বলা হয় ‘ময়নাতদন্ত’। সাধারণত অস্বাভাবিকভাবে কারোর মৃত্যু হলে বা কোনো অজানা কারণে সুস্থ স্বাভাবিক মানুষের মৃত্যু হলে মৃত্যুর কারণ খুঁজে বার করার পদ্ধতিকে বলা হয় ময়নাতদন্ত। তবে ইংরেজিনামের সাথে বাংলা নামের কোনো মিলই নেই। সেক্ষেত্রে একটি পাখির নাম যোগ করে তৈরি হয়েছে শব্দটি।

    হলুদ ঠোঁট বিশিষ্ট কুচকুচে কালো রঙের এই ময়না পাখি ৩ থেকে ১৩ রকমের স্বরে ডাকতে পারে। এই পাখিটি নিজেকে অন্ধকারের কালো আলোয় লুকিয়ে রাখতে পারে ফলতখালি চোখে অন্ধকারে ময়না পাখিকে দেখা যায় না।

    এমনকি এই পাখিটি নিজেকে অন্ধকারে মধ্যে লুকিয়ে রাখতে পারে। ফলস্বরূপ তাকে খালি চোখে দেখা যায় না। শুধুমাত্র অভিজ্ঞ মানুষেরাই তার ডাক শুনে পাখিটিকে চিহ্নিত করতে পারেন।

    অন্ধকারের মধ্যে ময়নাকে তদন্ত করে অভিজ্ঞ মানুষেরা খুঁজে বের করতে পারেন, ঠিক তেমনি ময়নাতদন্তের মাধ্যমে চিকিৎসকেরা সামান্যতম সূত্র ধরেও বড়ো কোনো রহস্যকে প্রকাশ্যে আনতে পারেন। যার ফলে কী কারণে কারোর মৃত্যু ঘটেছে জানা যায় তার আসল সত্যিটা। এই জন্যই এই শব্দটিকে বলা হয় ময়নাতদন্ত।

    এক্ষেত্রে অন্ধকারের মধ্যে লুকিয়ে থাকা ময়না পাখিকে শুধুমাত্র কণ্ঠস্বর শুনেই যেভাবে নির্দেশিত করতে পারে অভিজ্ঞ চোখ, ঠিক একইভাবে ময়নাতদন্তের মাধ্যমে চিকিৎসকেরা সামান্য সূত্রের হাত ধরে বের করেন মৃত্যুর পেছনে থাকা বড় রহস্যটিকে।

    ব্যক্তিটির মৃত্যু কিভাবে ঘটেছিল তার নেপথ্যে থাকা কারণটিকে অন্ধকার থেকে আলোয় নিয়ে আসার এই পদ্ধতির নাম “ময়নাতদন্ত” যথার্থই!


    লালসবুজের কণ্ঠ/তন্বী

    3Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর