ঝালকাঠিতে এসির বিষাক্ত গ্যাসে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু - লালসবুজের কণ্ঠ
    মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:৩১ পূর্বাহ্ন

    ঝালকাঠিতে এসির বিষাক্ত গ্যাসে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু

    • আপডেটের সময় : শনিবার, ২০ আগস্ট, ২০২২

    ঝালকাঠি প্রতিনিধি:


    ঝালকাঠির রাজাপুরে এসির বিষাক্ত গ্যাসে দমবন্ধ হয়ে স্বামী ও স্ত্রী নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় নিহত দম্পত্তির ছেলে, ছোট ভাইয়ের বউ ও তাদের বাচ্চা আহত হয়েছে। আহতদের রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

    গতরাতে রাজাপুর উপজেলার ১নং সাতুরিয়া ইউনিয়নের দক্ষিন তারাবুনিয়া চান্দের বাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

    রাজাপুর থানা পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সাতুরিয়ার আমতলা বাজারের ব্যবসায়ী ফোরকান হাওলাদার (৪৫) জেনারেটর চালিয়ে বাড়ির একটি কক্ষে এসি ছেড়ে স্ত্রী মাহিনুর বেগম (৪০), ছেলে মাইনুল ইসলাম (১৪), ছোট ভাই রুবেলের স্ত্রী মাহফুজা বেগম (৩২) ও ভাইয়ের মেয়ে সারা মনি (৩) কে নিয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। রাতে এসিতে শব্দ হয়। এরপরই বিষাক্ত গ্যাস ছড়িয়ে পড়ে ওই কক্ষে। সেখানে ঘুমিয়ে থাকা পাঁচজনই অসুস্থ হয়।

    শনিবার (২০আগষ্ট) সকালে তাদের কোন সারাশব্দ না পেয়ে বড়ভাই সেলিম হাওলাদার ১১টার দিকে গেটের তালা ভেঙে ভেতরে গিয়ে লোকজন নিয়ে তাদের উদ্ধার করেন। এর মধ্যে ব্যবসায়ী ফোরকান হাওলাদার ও তাঁর স্ত্রী মাহিনুর বেগম দমবন্ধ হয়ে মারা যায়। আহতরা অজ্ঞান ছিল, তাদের উদ্ধার করে রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

    আহত মাহফুজা বেগম বলেন, ঘরের সবাই রাত ১১টার দিকে শোয়ার পরে শুনতে পাই এসি থেকে থেমে থেমে শব্দ হচ্ছে আর গন্ধ বের হচ্ছে। আমি বারবার ওঠার চেষ্টা করেও উঠতে পারিনি। পরে আর কিছু বলতে পারিনা। একটু আগে দেখি আমাদের সবাই ধরাধরি করে ঘর থেকে বের করে হাসপাতালে নিয়ে আসছে।

    ১নং সাতুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সৈয়দ মাইনুল হায়দার নিপু বলেন, ঘটনা আমার ৭ নাম্বার ওয়ার্ড আমি রাত সাড়ে ১১টার পরে সংবাদ পাই, চান্দের বাড়ি এলাকার জোহর আলীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটেছে ২জন মারা গেছে এবং ৩জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে।

    রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের ডাঃ মো. আমির সোহেল বলেন, আহত অবস্থায় ৩ জন আমাদের কাছে চিকিৎসা নিতে আসে তারা মোটামুটি সুস্থ আছে। তারপরেও আমরা তাদের ২৪ ঘন্টার পর্যবেক্ষনে রেখেছি।

    রাজাপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) গোলাম মোস্তফা জানান, জেনারেটর দিয়ে এসি চালানোর কারণে রাতেই বিষাক্ত গ্যাস ছড়িয়ে পড়ে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ঝালকাঠি সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে।

    ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. জোহর আলী বলেন, ২ জন মারা গেছে এবং ৩ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে। প্রাথমিকভাবে এসির কোনো দূর্ঘটনা দেখতে পাওয়া যায়নি যারা আহত হয়েছে তারা হাসপাতালে আছে তারা বলছে গ্যাসের কিছু গন্ধ পেয়েছে।

    নিহত ও আহতদের শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন নেই লাশ ময়নাতদন্ত শেষে রিপোর্ট পেলে কি কারনে ঘটনা ঘটেছে তা জানাযাবে।


    ঈমন/এআর

    0Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর