জয়েন্টের ব্যথা দূর করার ৩ খাবার - লালসবুজের কণ্ঠ
    সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৭:৩৭ পূর্বাহ্ন

    জয়েন্টের ব্যথা দূর করার ৩ খাবার

    • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ১৪ জুন, ২০২২

    নিউজ ডেস্ক,লালসবুজের কণ্ঠ;


    আমাদের সুস্থতার জন্য ভিটামিন ডির প্রয়োজনীয়তা অনেক। হাড়ের ব্যথা দূর করতে কিংবা দাঁত ভালো রাখতে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন এই ভিটামিন।

    এটি আমাদের মানসিক স্বাস্থ্যও ভালো রাখতে কাজ করে। ভিটামিন ডির সবচেয়ে বড় উৎস হলো সূর্যের আলো। আর খাবারের মধ্যে ডিম, মাছ, দুধসহ অন্যান্য খাবারে এই ভিটামিন পাওয়া যায়।

    আমরা যেসব খাবার খাই, তার মাধ্যমেই শরীরে পৌঁছে যায় প্রয়োজনীয় পুষ্টি। এর ওপরেই নির্ভর করে আমাদের সুস্থ থাকা। সঠিক ও পুষ্টিকর খাবার খেলে তা আমাদের সতেজ, কর্মক্ষম রাখে।

    কিন্তু দুঃখজনক বিষয় হলো, আমরা এদিকে খেয়াল খুব কমই রাখি। আমরা সেসব খাবারই বেশি খাই, যেগুলো খেতে বেশি ভালোলাগে।

    প্রয়োজনীয় পুষ্টির দিকে আমাদের নজর থাকে কম। আমাদের খাদ্যাভ্যাসের ভুল জয়েন্টের ব্যথার কারণ হতে পারে। জয়েন্টের ব্যথা থেকে বাঁচতে হলে খাবারের প্রতি হতে হবে সচেতন।

    শরীরের জন্য একেক ভিটামিনের প্রয়োজনীয়তা একেক রকম। যেমন হাড়ের স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন হলো ভিটামিন ডি।

    এই ভিটামিনের ঘাটতি দেখা দিলে হাড়ের পাশাপাশি দাঁতেও সমস্যা হতে শুরু করে। দাঁত হয়ে যায় দুর্বল।

    সেইসঙ্গে মেটাবোলিক নানা সিনড্রোম, ব্রেস্ট ক্যান্সার, অবসাদ ইত্যাদিও দেখা দিতে পারে। তাই জয়েন্টে ব্যথাসহ অন্যান্য সমস্যা থেকে বাঁচতে প্রতিদিনের তালিকায় রাখুন এই তিন খাবার-

    ডিম খাবেন যে কারণে

    ডিম সহজলভ্য একটি খাবার। এর উপকারিতার তালিকাও অনেক দীর্ঘ। ডিমের হলুদ অংশ অর্থাৎ কুসুম খেলে ভিটামিন ডি এর ঘাটতি কমে আসে। এছাড়াও ডিমের কুসুমের আছে আরও অনেক উপকারিতা। তাই প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় ডিম রাখতে হবে। এতে জয়েন্টে ব্যথাসহ আরও অনেক সমস্যা থেকে দূরে থাকতে পারবেন। আপনার যদি আগে থেকে কোলেস্টেরলের সমস্যা থাকে, তবে ডিমের কুসুম খাওয়ার আগে চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে নিন।

    মাছ খান প্রতিদিন

    বেশিরভাগ বাঙালির পছন্দের খাবারের তালিকায় থাকে মাছের নানা পদ। কিন্তু বর্তমানে অনেকে মুখরোচক বিভিন্ন খাবার ও ফাস্টফুডের দিকে ঝুঁকছেন। দূরে সরে আসছেন পুষ্টিকর খাবার থেকে। যে কারণে শরীরে তৈরি হচ্ছে পুষ্টির ভয়াবহ ঘাটতি। ভিটামিন ডি এর ঘাটতি পূরণে সাহায্য করে বিভিন্ন ধরনের মাছ। বিশেষ করে সব ধরনের সামুদ্রিক মাছে পাওয়া যায় এই ভিটামিন। তাই নিয়মিত মাছ পাতে রাখা জরুরি। মাছে থাকে পর্যাপ্ত ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড। এটি ফ্যাটি অ্যাসিডের সমস্যা কমাতে কাজ করে।

    দুধ ও অন্যান্য

    ভিটামিন ডির ঘাটতি পূরণে কাজ করে দুধ ও দুগ্ধজাত বিভিন্ন খাবার। যেমন দই, চিজ ইত্যাদিতে থাকে পর্যাপ্ত ভিটামিন ডি। এছাড়াও ভিটামিন ডি পাওয়া যাবে সয়াবিনেও। তাই জয়েন্টে ব্যথা দূর করার জন্য এই খাবারগুলো রাখতে পারেন প্রতিদিনের তালিকায়।

    সূর্যের আলোতে থাকুন

    ভিটামিন ডির সবচেয়ে ভালো উৎস হলো সূর্যের আলো। তাই প্রয়োজনীয় ভিটামিন ডি পেতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই সূর্যের আলোতে দাঁড়াতে হবে। তাহলে সবচেয়ে বেশি উপকার পাবেন। প্রতিদিন নিয়ম করে অন্তত মিনিট বিশেক রোদে থাকতে হবে। এর পাশাপাশি খেতে হবে ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবারগুলোও।


    লালসবুজের কণ্ঠ/তন্বী

    43Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর