জাজিরার সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতিকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা - লালসবুজের কণ্ঠ
    সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৯:২৫ পূর্বাহ্ন

    জাজিরার সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতিকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা

    • আপডেটের সময় : বুধবার, ৮ জুন, ২০২২

    শরীয়তপুর প্রতিনিধি :


    শরীয়তপুর জাজিরার সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতিকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা । তিনি স্থানীয় বিএম মোজাম্মেল হক উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক।

    মঙ্গলবার (০৭ জুন) দিবাগত রাত ১০টার দিকে জাজিরার উত্তর খোসাল সিকদার কান্দি গ্রামে দুর্বৃত্তরা তাকে কুপিয়ে আহত করে রেখে যায়। রাত ১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

    জাজিরা পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইলিয়াছ মাদবর ও জাজিরা উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি সেলিম মাদবর গ্রুপের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

    এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে সুজন ফকির (৩০) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

    পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, জাজিরার উত্তর খোসাল সিকদার কান্দি গ্রামের মৃত কিনাই মালতের ছেলে সাইফুল ইসলাম মালত।

    মঙ্গলবার রাতে সাইফুল ইসলাম জাজিরা উপজেলা সদর থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। রাত পৌনে ১০টার দিকে বাড়ির কাছাকাছি পৌঁছালে দুর্বৃত্তরা তার ওপর হামলা চালায়। কুপিয়ে আহত করে রাস্তায় ফেলে যায়।

    খবর পেয়ে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। অবস্থার অবনতি হলে রাতেই তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়। রাত ১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি মারা গেছেন।

    তার স্ত্রী সাথী আক্তার বলেন, আমরা আওয়ামী লীগ করি। তারপরও কেন আমার স্বামীকে আওয়ামী লীগের সমর্থকরা মেরে ফেললো।

    জাজিরা উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি সেলিম মাদবর ঢাকায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন। মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

    জাজিরা পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলের ইলিয়াছ মাদবর বলেন, কারা সাইফুলকে হত্যা করেছে তা পুলিশ জানে। সাইফুলের পরিবার পুলিশকে তাদের নাম বলেছে। আমি এ বিষয়ে মন্তব্য করতে চাই না।

    জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ইলিয়াছ মাদবর ও সেলিম মাদবর গ্রুপের মধ্য আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্ব ছিল।

    নিহত সাইফুল ইলিয়াছের সমর্থক ছিলেন। কিছুদিন আগের একটি মামলা নিয়ে সেলিমের লোকজন তার ওপর ক্ষুব্ধ ছিল।

    এর জেরে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করছি। তারপরও বিষয়টি অনেক গভীরে তদন্ত করা হবে।


    নাছির/তন্বী

    32Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর