চেয়ারম্যান যখন ডুমুরের ফুল  - লালসবুজের কণ্ঠ
    শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৩৯ অপরাহ্ন

    চেয়ারম্যান যখন ডুমুরের ফুল 

    • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ৭ জুন, ২০২২
    মেহেরপুর প্রতিনিধি


    জন্ম নিবন্ধনের জন্য এসেছিলেন জোড়পুকুর রাজারের ব্যবসায়ি হাবিবুর রহমান। ঘড়িতে দুপুর একটার কাঁটা ছুঁই ছুঁই। চেয়ারম্যানের দেখা মিলছে না। দেড়টার দিকে চেয়ারম্যান অফিসে আসলেন। এমন প্রতিক্ষার পর কাজ শেষে তার দেরীতে আসার হেতু জানতে চাইলেও কোন জবাব মেলেনি।
     শুধু হাবিবুর নয়, তার মতো সেবা নিতে আসা কাজীপুর ইউনিয়নবাসীকে অপেক্ষা করতে হয় আধা বেলা। আবার কখনও কখনও দিন গড়িয়ে গেলেও দেখা মেলেনা চেয়ারম্যানের।
    ঘটনাটি মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার কাজীপুর ইউনিয়নের। এখানে দ্বায়িত্ব পালন করেন আলম হুসাইন।
    স্থানীয়রা জানান, চেয়ারম্যান আলম হুসাইন করমদী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। এবারের নির্বাচনে তিনি কাজিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তিনি প্রথমে বিদ্যালয়ে যান। পরে সেখান থেকে কাজ শেষ করে দুপুর পর আসেন ইউনিয়ন পরিষদে। এদিকে পরিষদে সেবা নিতে আসা শত শত মানুষ চেয়ারম্যানের অপেক্ষায় প্রহর গুনতে থাকে। অনেক সময় দীর্ঘ্য প্রতিক্ষার পর চেয়ারম্যানের দেখা মেলে না। সেবা না নিয়েই ফিরতে হয় বাড়িতে পরের দিনের অপেক্ষায়।
    এছাড়াও স্থানীয়দের অভিযোগ চেয়ারম্যানের অবহেলার কারণেই পরিষদে দায়ের করা বিভিন্ন অভিযোগ
     ৫/৬ মাসেও নিঃপত্তি হয় না। বিচারের আশায় মাসের পর মাস ঘুরতে হয় ইউনিয়ন পরিষদের বারান্দায়।
    এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান আলম হুসাইন জানান, তিনি সকালে স্কুলে যান। একটা দুইটা তিনটা যখন প্রয়োজন হয় তখন পরিষদে যান।
    সেবা প্রত্যাশীদের অসুবিধার কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রয়োজনে অফিস টাইম বাদে সকাল বিকাল সময় দেন তিনি।
    জাহিদ/স্মৃতি
    0Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর