চাঁপাইনবাবগঞ্জে জনপ্রিয় তরকারি পাটের শাক - লালসবুজের কণ্ঠ
    মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৪:২৬ পূর্বাহ্ন

    চাঁপাইনবাবগঞ্জে জনপ্রিয় তরকারি পাটের শাক

    • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ২৮ জুন, ২০১৯

    চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি:
    সোনালী আঁশ হিসেবে পরিচিত পাট। এই পাট দিয়ে বানানো হয় বস্তা,ব্যাগসহ বিভিন্ন ব্যবহৃত জিনিসপত্র। তবে এই সোনালী ফসল পাটের পাতা চাঁপাইনবাবগঞ্জের মানুষ রান্না করে খান ভাতের সঙ্গে । পাটের শাক অত্যান্ত সু-স্বাাদু হওয়ায় প্রায় প্রতিটি বাড়ীতে রান্না করে খাওয়া হয়।

    সদর উপজেলার রামচন্দ্রপুর হাট এলাকার বাসিন্দা কৃষক মোস্তফা জানান,তিনি ৪ বিঘা জমিতে এই বছর পাট চাষ করেছেন। গাছগুলো অত্যান্ত সবুজ হওয়ায় ও পাতা বেশির কারনে শাক হিসেবে বাজারে বিক্রি করে দিচ্ছেন। পাটের শাকের চাহিদা ব্যাপক থাকায় ভাল দামও পাওয়া যাচ্ছে।

    পাটের শাকে আমের আচার,খাঁটি শরিষার তেল ও কাঁচা মরিচ ও লেবুর রস

    শিবগঞ্জ পৌর এলাকার গৃহিনী আনোয়ারা বেগম জানান,পাটের শাক বাজারে উঠার জন্য অপেক্ষোয় থাকতে হয়। শাক বাজারে উঠলেই প্রায় দিনই বাজারের তালিকাতে পাটের শাক রাখতে হয়। ভাত,ডাল,যে কোন মাছ মাংসের সাথে শাক একটি জনপ্রিয় তরকারি হয়ে উঠেছে। পাটের শাকে একটু আমের আচার,খাঁটি শরিষার তেল ও কাঁচা মরিচ ও লেবুর রসমিশিয়ে দিলে স্বাদ ভোলা যাবেনা।

    শিবগঞ্জ তরকারি বাজারের বৃদ্ধ আনার মন্ডল জানান,আগে পাটের শাক সাধারনত গ্রামের লোকজন বেশি খেত। কিন্তু এখন গ্রামের চেয়ে শহরের লোকজন বেশি খাই। প্রায় তিন মাস তিনি বিভিন্ন জনের ক্ষেত হতে পাটের শাক কিনে এনে বাজারে বিক্রি করেন।

    তিনি আরও জানান,পাটের শাক বিক্রি করে লাভ ভাল হয় আবার বাজারে নামা মাত্রই শেষ হয়ে যায়। অন্য সবজির চাইতে পাটের শাকের চাহিদা থাকায় বেশি সময় বাজারে বসে থাকতে হয়না।

    চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষি বিভাগের উপ-পরিচালক মঞ্জুরুল হোদা জানান,পাটে সাধারনত কোন ধরনের কীটনাশক ব্যবহার করা হয়না। এক রকম নিরাপদ খাদ্য হিসেবে পাটের অন্য শাক সবজির চাইতে চাহিদা বেশি থাকে।

    তিনি আরও জানান,চলতি মৌসুমে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় প্রায় ১৬শ হেক্টো জমিতে পাটের আবাদ হয়েছে। অধিকাংশ জমির পাট শাক হিসেবে খাচ্ছে জেলার মানুষ।

    411Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর