কবর পাহারায় রাত কাটছে স্বজনদের - লালসবুজের কণ্ঠ
    শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:৫১ অপরাহ্ন

    কবর পাহারায় রাত কাটছে স্বজনদের

    • আপডেটের সময় : সোমবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২২

    লালসবুজের কণ্ঠ,নিউজ ডেস্ক


    সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় বজ্রপাতে একই পরিবারের পাঁচজনসহ ৯ জনের মৃত্যুর ঘটনায় স্বজনদের শোক এখনো কাটেনি। এ অবস্থায় কবরস্থান থেকে মৃতদেহ চুরির আশঙ্কায় রাত কাটছে স্বজনদের। রাত জেগে দুটি কবরস্থান পাহারা দিচ্ছে তারা।

    গত বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার মাটিকোড়া গ্রামে জমিতে ধানের চারা তোলার সময় বজ পাতে দুই শিশুসহ ৯ জনের মৃত্যু হয়।ওই দিন রাতেই উল্লাপাড়ার শিবপুর কবরস্থানে একই পরিবারের পাঁচজন এবং মাটিকোড়া গ্রামের কবরস্থানে চারজনকে দাফন করা হয়।

    শিবপুর গ্রামের মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন বলেন, ‘শুনেছি বজ পাতে কারো মৃত্যু হলে কবর থেকে লাশ চুরি হয়। এ কারণে বজ পাতে মৃতদের দেহ চুরির আশঙ্কায় আমরা দাফনের দিন থেকেই গ্রামবাসীকে নিয়ে রাত জেগে কবরস্থান পাহারা দিচ্ছি। গ্রামের যুবকরা এ কাজে সহযোগিতা করছে। ’

    এ ব্যাপারে প্রশাসনের সহযোগিতা চান তাঁরা।

    এদিকে মাটিকোড়া গ্রামের মৃত শাহ আলমের চাচাতো ভাই ইউসুফ জোয়াদ্দার বলেন, ‘বজ্রপাতে মারা যাওয়া চারজনকে আমাদের গ্রামের কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। মৃতদেহ চুরির আশঙ্কায় আমরা স্বজনরা মিলে প্রথম দিন থেকেই রাত জেগে কবর পাহারা দিচ্ছি। এভাবে দীর্ঘদিন কবর পাহারা দেওয়া অনেক কষ্টকর। গ্রামের মাতবরদের সঙ্গে কথা বলেছি। তাঁরা অনুমতি দিলে মৃতদেহ চুরি থেকে রক্ষায় কবর চারটি ইট দিয়ে পাকা করে দেওয়া হবে। ’

    এদিকে বজ্রপাতে যে পরিবারের পাঁচজন মারা গেছে ওই পরিবারের আরেক সদস্য বজ পাতে আহত জাহাঙ্গীর হোসেন এখনো সুস্থ হননি। বর্তমানে বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছেন তিনি। পরিবারটিতে বর্তমানে কর্মক্ষম কেউ নেই। তাই সরকার ও বিত্তবানদের কাছে সহায়তা চেয়েছেন পরিবারটির মৃত শমসের আলীর স্ত্রী শান্তি বেগম (৬০)। একই স্থানে বজ্রপাতে আহত মাটিকোড়া গ্রামের চার শিশুও বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছে।

    জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মৃত ৯ জনের প্রত্যেক পরিবারকে ২৫ হাজার এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য তানভীর ইমাম পাঁচ হাজার করে টাকা দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া শিবপুরের পাঁচজনের পরিবারকে উল্লাপাড়া পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম ৫০ হাজার এবং যুবলীগের চেয়ারম্যান ফজলে শামস্ পরশের স্ত্রী অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথী ৫০ হাজার টাকা সহায়তা দিয়েছেন।

    নিউজ ডেস্ক/স্মৃতি

    0Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    এই বিভাগের আরও খবর