এখন নৌকায় বসবাস তাদের - লালসবুজের কণ্ঠ
    রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ০৫:২০ পূর্বাহ্ন

    এখন নৌকায় বসবাস তাদের

    • আপডেটের সময় : বুধবার, ২২ জুন, ২০২২

    রাজশাহী প্রতিবেদক:


    সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার যমুনাসহ সব নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় নতুন নতুন এলাকা বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে।

    এখন নৌকার উপরই নির্ভর ও বসবাস করতে হচ্ছে ওই সব এলাকার মানুষের।

    এর মধ্যে উপজেলার পৌর সদরের ৮নং ওয়ার্ডের দ্বারিয়াপুর নতুনপাড়ার ঋষিপল্লির ১০-১২টি বাড়িঘর বন্যার পানিতে ডুবে গেছে।

    পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন এ পাড়ার অর্ধশতাধিক নারী, পুরুষ ও শিশু। তারা নৌকা ছাড়া ঘর থেকে বাইরে বের হতে পারছেন না।

    নৌকা না পাওয়া গেলে তাদের বন্যার পানি সাঁতরিয়ে পার হতে হচ্ছে। ঘরে চাল নেই। ডাল নেই। তারা অর্ধাহারে অনাহারে দিন কাটাচ্ছেন।

    এ বিষয়ে ওই গ্রামের লিখন, জাহিদুল, বিপ্লব ও হোসাইন জানান, গত কয়েক দিন ধরে এরা পানিবন্দি হয়ে পড়লেও ত্রাণ দেওয়া তো দূরের কথা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এদের কেউ খোঁজ খবরও নেয়নি।

    ফলে এরা ছোট ছোট ছেলেমেয়ে নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। ডুবে যাওয়া ঘরবাড়ির অনেকেই শিশুসন্তান নিয়ে নৌকায় বাস করছেন। ফলে এদের মাঝে মানবিক বিপর্যয় নেমে এসেছে।

    এরা মাঝে বিশুদ্ধ পানি ও খাবারের তীব্র অভাব দেখা দিয়েছে। বন্যার পানিতে ল্যাট্রিন ডুবে যাওয়ায় পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে।

    এছাড়া উপজেলার ব্রাহ্মণগ্রামে নদী ভাঙন অব্যাহত থাকায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১০টি বাড়িঘর যমুনাগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। নেপিয়ার ঘাসের জমি বন্যার পানিতে ডুবে যাওয়ায় গো-খাদ্যের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে।

    এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তারিকুল ইসলাম বলেন, এ পর্যন্ত ৪০ প্যাকেট শুষ্ক খাবার প্যাকেট বিতরণ করা হয়েছে।

    আমাদের হাতে পর্যাপ্ত পানি বিশুদ্ধিকরণ ট্যাবলেট রয়েছে। যেখানে বিশুদ্ধ পানির অভাব রয়েছে সেখানে এ ট্যাবলেট পৌঁছে দেওয়া হবে।

    এছাড়া ২০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ পাওয়া গেছে। দ্রুত ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা প্রস্তুত করে বিতরণ করা হবে।


    টি,আর/তন্বী

    0Shares

    এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    এই বিভাগের আরও খবর